১১’য় নন্দীগ্রাম কেন্দ্র থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন মমতা

0
213

নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: মঙ্গলবারই জুট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। দল মুখে স্বীকার না করলেও শুভেন্দু অনুগামীদের বক্তব্য, নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী পদে নমিনেশন জমা দিতে তৈরি তিনি। কারন এবারের নির্বাচনে নন্দীগ্রাম থেকে বিজেপির টিকিটে প্রার্থী হচ্ছেন দাদা’ই। সকালে যখন এই খবর সামনে রাজনৈতিক মহলে আলোচনা শুরু হয়েছে তখন দিনের শেষে আরও একটা খবরে উদ্দীপনা আরৈ চরমে পৌঁছেছে। সুত্রের খবর শুভেন্দু একা নন। নন্দীগ্রামে সমানে সমানে টক্কর দিতে তিনিও তৈরি।আগামী ১০ তারিখ বৃহস্পতিবার রাতেই কলকাতা থেকে হলদিয়ায় পৌঁছবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই দিন রাতেই হলদিয়ায় দলীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। ভোটের রণকৌশলও বাতলে দেবেন দলীয় নেতা কর্মীদের। পরদিন অর্থাৎ ১১ তারিখ শুক্রবার হলদিয়া মহকুমা শাসকের কাছে নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী পদে মনোনয়ন জমা দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, আগামী ১২ মার্চ দ্বিতীয় দফার ভোটের মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন। ওইদিন মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পাশাপাশি দু’টি জনসভা করে নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রে আনুষ্ঠানিকভাবে ভোটের প্রচারও শুরু করবেন তিনি। অনেকে বলছেন ২১শে’র বিধানসভা ভোটে এবার সবার নজর যে নন্দীগ্রামের দিকে থাকবে তা আগেই বোঝা গিয়েছিল। এবার সেই তাৎপর্যপূর্ণ লড়াইয়ের প্রথম পর্যায় শুরু হতে যাচ্ছে।

ভোট যুদ্ধের জন্য ওয়ার্ম আপ শুরু করে দিয়েছেন শুভেন্দু। বিজেপি সরকারিভাবে তাঁর প্রার্থী হওয়ার কথা ঘোষণা না করলেও, শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ সূত্রের খবর, নির্বাচনে লড়তে হলে সমস্ত সরকারি পদ থেকে ইস্তফা দিতে হয়। আর সেজন্য তিনি জুট কর্পোরেশনের সরকারি পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, ইতিমধ্যে তিনি নিজের নির্বাচনী হলফনামাও প্রস্তুত করে ফেলেছেন।

প্রসঙ্গত, শুভেন্দুর গড় হিসেবে পরিচিত এই নন্দীগ্রাম আসন থেকেই এবার তৃণমূলের টিকিটে লড়ার কথা ঘোষণা করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৮ জানুয়ারি নন্দীগ্রামের তেখালির জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী নিজেই ঘোষণা করেছিলেন যে নন্দীগ্রাম থেকে তিনি প্রার্থী হতে চান। সেই ঘোষণা ষর সঙ্গে সঙ্গে শুভেন্দুও চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। শুভেন্দু পাল্টা জনসভা থেকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ৫০ হাজার ভোটে হারাবে বিজেপি প্রার্থী। তারপর থেকেই ওই কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে কে লড়বেন, তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে যায়। প্রথমে ভেসে আসছিল শুভেন্দুর ভাই দিব্যেন্দুর নামদ। কিন্তু যেহেতু তিনি এখনও ,খাতায় কলমে তৃণমূলেই আছেন তাই সে সম্ভবনা আজ আর নেই। তবে, শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ সূত্রে যে দাবি করা হচ্ছে তাতে নন্দীগ্রাম কেন্দ্র থেকে মমতার বিরুদ্ধে লড়বেন শুভেন্দুই।

২০১৬’র বিধানসভা নির্বাচনে তৎকালীন তৃণমূল বিধায়ক ফিরোজা বিবিকে সরিয়ে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীকে শাসকদলের প্রার্থী করেন তৃনমূল নেতৃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ৮১ হাজারের বেশি ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়ে মমতা সরকারের মন্ত্রী সভায় গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী হন শুভেন্দু। সম্প্রতি বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়ে সেই শুভেন্দুই আজ তৃণমূল নেতৃর বিরুদ্ধে নন্দীগ্রামেই লড়াইয়ে নামতে চলছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে