কয়লা পাচার কাণ্ডে আরও এক আইপিএস’কে তলব করল সিবিআই

0
121

নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: কয়লা পাচার কাণ্ডে নয়া মোড়। উঠে এল আরও এক পুলিশ আধিকারিকের নাম। বাঁকুড়ার আইসি’এর পর এবার জেলার এসপি’কে তলব করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। ১৩ এপ্রিল, মঙ্গলবার আইপিএস কোটেশ্বর রাওকে নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চলতি মাসের ৪ তারিখ এই কেলেঙ্কারির সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের প্রথম দিনই বাঁকুড়ার ইন্সপেক্টর ইনচার্জ (IC) অশোক মিশ্রকে গ্রেপ্তার করেছে সিবিআই। সূত্রের খবর, ৭ ঘন্টার জেরায় কয়লা ও গরু পাচার নিয়ে গোয়েন্দাদের নানা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছিলেন অশোক। এবার তাঁর কথার সূত্র ধরেই সিবিআই স্ক্যানারে এসপি কোটেশ্বর রাও, বলে দাবি সূত্রের। জানা গিয়েছে, গত ২ বছর ধরে বাঁকুড়ার পুলিশ সুপার থাকাকালীন বেআইনি এই পাচার কাণ্ডের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এসেছিল তাঁর কাছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও কোনওরকম হেলদোল দেখা যায়নি তাঁর। এমনকি একাধিক অভিযুক্তের বাড়িতে তল্লাশি চলাকালীন বিভিন্ন নথিতে উঠে এসেছে তাঁর নাম। এই তথ্য পেয়েই কোটেশ্বরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠিয়েছে সিবিআই। যদিও এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেননি কোটেশ্বর।

প্রসঙ্গত, কয়লা কাণ্ডের জট খুলতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)’এর সঙ্গে দ্রুতগতিতে তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার সূত্রের দাবি, এই কাণ্ডের জাল ছড়িয়ে রয়েছে বহুদূর পর্যন্ত। আর তাই ভারত ও বাংলাদেশে ছড়িয়ে থাকা এই চক্রের পাণ্ডাদের ধরতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। তদন্তে উঠে আসা অভিযুক্তদের একটি তালিকা তৈরি করে, সেই মতো জিজ্ঞাসাবাদ করছেন তারা। উঠে এসেছে যুব তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্র ও তার ভাই বিকাশ মিশ্রের নাম। সম্প্রতি দিল্লি থেকে বিকাশকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে এখনও পলাতক বিনয়। যদিও তার বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

এদিকে, ইতিমধ্যেই সিবিআই’এর কাছে আত্মসমর্পন করেছে এই কাণ্ডের মূল পাণ্ডা অনুপ মাঝি ওরফে লালা। তাকে ৪ বার জেরাও করেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। যদিও সুপ্রিম কোর্টের ‘রক্ষাকবচ’এর জন্য তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি সিবিআই। তাৎপর্যপূর্ণভাবে, মঙ্গলবার এসপি’র হাজিরা থাকার দিনই লালার রক্ষাকবচের মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে